সময়োপযোগী প্রোগ্রামসমূহ

অবাক করা সাফল্যগাঁথা

icon1

+

২০২১ সালের মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় উন্মেষ থেকে মেডিকেলে প্রথম ১০ এ ১০ জন, প্রথম ২০ এ ১৮ জন এবং DMC-তে ১৯২ জন সহ সর্বমোট ৩২০০+ শিক্ষার্থীর ঈর্ষণীয় সাফল্য!


icon1

+

২০২০ সালের মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় উন্মেষ থেকে মেডিকেলে প্রথম ১০ এ ১০ জন, ডেন্টালে প্রথম ১০ এ ৮ জন এবং DMC-তে ২০৭ জন সহ সর্বমোট ৩৩১৬ জন শিক্ষার্থীর ঈর্ষণীয় সাফল্য!


icon1

+

২০১৯ সালের মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় উন্মেষ থেকে মেডিকেলে প্রথম ১০ এ ৬ জন, ডেন্টালে প্রথম ১০ এ ৫ জন এবং DMC-তে ১৬০ জন সহ সর্বমোট ২৭৪১ জন শিক্ষার্থীর ঈর্ষণীয় সাফল্য!


সফল যারা, কেমন তারা?

সুমাইয়া মোসলেম মীম

ভর্তি পরীক্ষা: ২০২১-২২
মেডিকেল ১ম

মেডিকেল ভর্তি প্রস্তুতিতে ভালো করতে আমি মূল বইকে বেশি প্রাধান্য দিয়েছি। আমার মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় উন্মেষ এর “ইউনিক এক্সাম সিস্টেম” খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে, কারণ অনুরূপ এক্সাম সিস্টেমে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষাও অনুষ্ঠিত হয়েছে। শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতিতে “উন্মেষ ফাইনাল সল্যুশন বুক” এর মাধ্যমে বেশি বেশি প্রশ্ন সমাধান প্র্যাকটিস করেছি। এছাড়া শর্ট সিলেবাস নিয়ে উন্মেষ এর দূরদর্শী প্ল্যানিং এর কারণে- আমি শর্ট এবং ফুল সিলেবাসে সম্পূর্ণ প্রস্তুতি নিলেও, বেশি জোর দিয়েছিলাম শর্ট সিলেবাসের উপর; যা ভর্তি পরীক্ষায় আমাকে সবচেয়ে বেশি এগিয়ে রেখেছে।

আব্দুল্লাহ

ভর্তি পরীক্ষা: ২০২১-২২
মেডিকেল ২য়

আমি নিয়মিত যা পড়তাম, সেই বিষয়ের উপর পরীক্ষা দেওয়ার মাধ্যমে চিহ্নিত ভুলগুলো খুঁজে সেগুলোর সমাধান করতাম। উন্মেষ-এর “ইউনিক এক্সাম সিস্টেম”এর মাধ্যমে নিয়মিত পরীক্ষা দেওয়ায়, মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র সম্পর্কে পূর্বে থেকেই সুস্পষ্ট ধারণা পাই, যার মাধ্যমে সহজেই আমার পরীক্ষাভীতি দূর হয়েছে। এছাড়া প্রস্তুতির শেষ মুহূর্তে উন্মেষ এর মডেল টেস্টগুলো সময় ধরে ধরে দিতাম, যা মূল পরীক্ষায় আমাকে টাইম ম্যানেজমেন্টে দারুণভাবে সাহায্য করেছে। তবে একথা মনে রাখতে হবে যে, মেডিকেল ভর্তি প্রস্তুতিতে মূল বইয়ের কোনো বিকল্প নেই।

অভীক মল্লিক

ভর্তি পরীক্ষা: ২০২১-২২
মেডিকেল ৩য়

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় ভালো করতে আমি মূল বই পড়ার পাশাপাশি অন্যান্য লেখকের বইও পড়তাম। উন্মেষ-এ শর্ট সিলেবাস ও ফুল সিলেবাসে আলাদাভাবে প্রস্তুতি সম্পন্ন করিয়েছে এবং শুরু থেকেই শর্ট সিলেবাসের উপর বিশেষভাবে জোর দিয়েছে, যা আমার জন্য মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় খুবই কার্যকরী ছিলো। শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতিতে উন্মেষ যে ফাইনাল মডেল টেস্টগুলো নিয়েছিলো, সেগুলো ছিলো একদম মেডিকেল স্ট্যান্ডার্ড। তবে আমার মেডিকেল ভর্তি প্রস্তুতিতে সবচেয়ে কার্যকরী ছিলো উন্মেষ এর “ইউনিক এক্সাম সিস্টেম”, কেননা মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষাও একই সিস্টেমে হয়েছিলো।

অনন্য সব সেবা পরিক্রমা

icon1

অফলাইন/অনলাইন প্রোগ্রাম

icon1

মেধাবী ও অভিজ্ঞ শিক্ষক

icon1

মানসম্মত স্টাডি ম্যাটেরিয়ালস

icon1

কনসেপ্ট বেইজড ক্লাস

icon1

ইউনিক এক্সাম সিস্টেম

icon1

Auto SMS রেজাল্ট

icon1

এক্সাম এনালাইসিস রিপোর্ট

icon1

বেস্ট স্টুডেন্ট পোর্টাল

যেমনই হোক পরিস্থিতি

থেমে থাকবে না প্রস্তুতি

নিজস্ব সফট্ওয়্যার টিমের সার্বক্ষণিক তত্ত্বাবধানে উদ্ভাস-উন্মেষ এর রয়েছে দেশসেরা অনলাইন লার্নিং প্লাটফর্ম (online.udvash-unmesh.com)। কোভিড-১৯ মহামারী অথবা যেকোনো সরকারি বিধি-নিষেধের কারণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলে সকল কার্যক্রম অনলাইনে চলমান থাকবে। ফলে শিক্ষার্থীদের ধারাবাহিক প্রস্তুতিতে কোনো প্রকার বিঘ্ন ঘটবে না। ২০২০ সালের বিভিন্ন ভর্তি পরীক্ষায় উদ্ভাস-উন্মেষ এর শিক্ষার্থীদের ঈর্ষণীয় সাফল্যই তার উৎকৃষ্ট প্রমাণ। উল্লেখ্য যে, অনলাইনেও শিক্ষার্থীদের সুষম প্রস্তুতি নিশ্চিতকরণে MCQ পরীক্ষার পাশাপাশি বাংলাদেশে একমাত্র উদ্ভাস উন্মেষ-ই ফিজিক্যালি Written পরীক্ষার অনুরূপ অনলাইনে Written পরীক্ষা নিয়ে থাকে।

সর্বোচ্চ কার্যকরী

ইউনিক এক্সাম সিস্টেম

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা নতুন পদ্ধতিতে (প্রত্যেক পরীক্ষার্থীর জন্য ইউনিক প্রশ্নসেট) অনুষ্ঠিত হয় । যেখানে ৩/8 টি Master Set থেকে সফট্ওয়্যারের মাধ্যমে Bar Code এবং QR Code ব্যবহার করে প্রত্যেক পরীক্ষার্থীর জন্য তৈরি করা হয় সমমান সম্পন্ন ইউনিক প্রশ্নসেট। তোমরা জেনে আনন্দিত হবে যে, বাংলাদেশে একমাত্র উন্মেষ-ই মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার অনুরূপ ইউনিক এক্সাম সিস্টেমে তাদের সকল পরীক্ষা নিয়ে থাকে । যে কারণে ২০২১ সালের মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় উন্মেষিয়ানদের সাফল্যের হারও ঈর্ষণীয় (মেডিকেলে প্রথম ১০ এ ১০ জন, প্রথম ২০ এ ১৮ জন এবং DMC-তে ১৯২ জন সহ সর্বমোট ৩২০০+ উন্মেষিয়ান চান্স পেয়েছে)। তাই মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় সফল হতে এবং নিজের প্রস্তুতির সঠিক অবস্থান জানতে "উন্মেষ ইউনিক এক্সাম সিস্টেম" এর কোনো বিকল্প নেই।